আর্টিকেল রাইটিং যেভাবে শুরু করবেন

0
554

সম্ভাবনাময় ক্ষেত্র লেখালেখিঃ যেভাবে শুরু করবেন

আর্টিকেল রাইটিংবা কন্টেন্ট রাইটিং হচ্ছে একটি মাধ্যম যার মাধ্যমে অনলাইনে ক্যারিয়ার গড়ার ক্ষেত্রে রয়েছে বিশাল সম্ভাবনাময় ক্ষেত্র।

যাদের ইংরেজীতে রয়েছে অগাধ দক্ষতা তারাই নিজেদেরকে রাইটার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারেন অনায়াসে। বিভিন্ন ওয়েব সাইটে বিভিন্ন উদ্দেশে আর্টিকেল লিখা হয়। ব্লগ আরটিকেল ছাড়াও প্রডাক্টের রিভিঊ, সারভিসের সেলস পেজ, ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের জন্য রিসোরস বই, ব্রশিউর, লিফলেট বা অন্যান্য প্রচারনার কাজে রাইটারদের আরটিকেল লিখার প্রয়োজন হয়।

রাইটিং এর উপর ফ্রিল্যান্স মার্কেট প্লেস গুলোতে রয়েছে হাজার হাজার প্রজেক্ট। এমন কি শুধু রাইটিং কে নিয়ে গড়ে উঠছে মার্কেট প্লেসের সংখ্যাও কম নয় যার কিছু সাইট নীচে উল্লেখ করা হলো ঃ

যেভাবে শুরু করবেন শুরুর দিকে:

১। প্রথম দিকে আপনাকে নিয়মিত বিভিন্ন বিষয়ের উপর লিখে যেতে হবে। এতে আপনার লেখালেখির দক্ষতা ও আত্ববিশ্যাস বাড়তে থাকবে। শুরুতেই কি বিষয় নিয়ে লিখবেন ভাবছেন ? তাহলে নীচের বিষয়গুলো লক্ষ্য করুন ঃ

  • বিষয় বাছাই করার ক্ষেত্রে আপনাকে এমন বিষয় বাছাই করা উচিত যেই বিষয়ে আপনি সবচেয়ে ভাল জানেন।
  • আপনি যেই বিষয়কে খুব অনুভব করেন সেই বিষয়কে গুরুত্ত দিন।
  • পাঠক কোন কোন বিষয় পড়তে বেশি আগ্রহী সেসব বিষয় নিয়েও লিখতে পারেন।

আপনাকে মনে রাখতে হবে আর্টিকেল রাইটিং এবং ক্রিয়েশন দুইটা ভিন্ন ব্যপার। ক্রিয়েশনের জন্য প্রয়োজন ঐ বিষয়ে প্রচুর জানাশুনা, এক্সপেরিমেন্ট এবং অনেক দিনের বাস্তব অভিজ্ঞতা, যেখানে আপনার নিজস্ব মতামত প্রতিষ্ঠা করতে হয়।

২। আর্টিকেল লিখার জন্য মূলত ৭ প্রকারের স্ট্রাকচার হতে পারে। এ জন্যই আপনাকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে কোন বিষয়ের জন্য কোন ধরনের স্ট্রাকচার লিখতে হবে। নিচের লিঙ্ক থেকে আমার সংগৃহীত লেখাটি ডাউনলোড করে পড়ে নিন, লেখার ৭ স্ট্রাকচার ও কিভাবে লিখতে হবে সেই সম্পরকে আপনার পরিপূরন জ্ঞান চলে আসবে।

৩। লিখার সময় গ্রামারের প্রতি এবং শব্দ ও বাক্য চয়নে আপনাকে বিশেষ খেয়াল দিতে হবে।

৪। লেখালেখি করার জন্য আপনাকে প্রচুর পড়তে হবে এবং বিভিন্ন বিষয়ে জানতে হবে। ভাল মানের লেখকদের বই নিয়মিত পড়ুন। তাদের লিখার স্টাইল অনুসরন করতে করতে করতে এক সময় আপনার নিজস্ব স্টাইল তৈরি হবে। এ ব্যপারে নীচের ব্লগ/সাইট গুলো ফলো করতে পারেন।

প্রফেশনালি নামুন

১। কি লিখবেন ?

সর্ব প্রথম আপনার খেয়াল রাখা উচিত কেন লিখছেন ? কাদের টারগেট করে লিখছেন এবং তারা কি চায় ? মনে রাখতে হবে লেখাটি যেন যুক্তিযুক্ত হয়। প্রথমেই নিজেকে জিজ্ঞেস করুন আপনি এই বিষয়ের পাঠক হলে কি কি তথ্য পেতে চাইতেন এই লিখা থেকে ? এক্ষেত্রে আমার আইডিয়া হচ্ছে প্রথমে বিষয় ভিত্তিক WH question ডেভেলপ করা। বুঝতে সমস্যা হলো না তো ? মনে করি আমাদের বিষয় হচ্ছে ইন্সুরেন্স। তাহলে আমরা নীচের WH question গুলো ডেভেলপ করতে পারি ঃ

  • ইন্সুরেন্স কি ?
  • কেন প্রয়োজন ?
  • করার আগে কি কি বিষয়ের দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে ?
  • কারা সারভিস প্রোভাইডার ?
  • ভাল সারভিস প্রোভাইডার কারা ?
  • কেমন প্রিমিয়াম দিতে হবে ?

এই প্রশ্নগুলোর আলোকেই আপনাকে আর্টিকেলটি লিখতে হবে।

২। কিভাবে লিখবেন ?

সর্বপ্রথমে আর্টিকেলটির টাইটেল লিখুন। টাইটেল আকর্ষনীয় হলে পাঠকের চোখে পড়ে, টাইটেল দেখেই পাঠক লেখাটি পড়তে আগ্রহী হয়ে যায়। এখন বলুন তো নীচের কোন টেইটেলটি আপনাকে বেশী আকৃষ্ট করে ?

  • চুল ঝরার ১০টি কারন।
  • যে ১০টি কারন না জানা থাকলে আপনার চুল ঝরে যেতে পারে।
  • যে সমস্ত কারনে চুল ঝরে যায়।

“যে ১০টি কারন না জানা থাকলে আপনার চুল ঝরে যেতে পারে” এটা তাই না ? এই টাইটেলটার দিকে পাঠক বেশী আকৃষ্ট হবে। সুতরাং টাইটেল এর ভেরিয়েশন আনা ও টাইটেল চয়ন করাও একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যপার।

গবেষনার কাজ শেষ পরযায়ে পৌছলে এবার লেখাটিকে তিনটি ধাপে সাজিয়ে ফেলুন। ধাপ তিনটি হলো ভূমিকা, পোস্ট বডি এবং উপসংহার। ভূমিকাতে থাকবে পাঠক আর্টিকেলটি থেকে কি পেতে চায় ? তারপর পোস্ট বডিতে থাকবে লেখার মূল অংশ। এখানেই আমরা WH question গুলো ডেভেলপ করলে যে উত্তরগুলো আসে সেগুলো পয়েন্ট আকারে সাজিয়ে লিখবো।

উপসংহারে আপনি পুরো বিষয়ের সামারি উল্লেখ করত পাঠককে উদ্বুদ্ধ করবেন উপরে লিখিত বিষয়ে। আপনার লিখার কাজ শেষ পরযায়ে, এই লিখাটাকে গ্রামার চেকিং এবং স্পেল চেকিং টুলস এর মাধ্যমে প্রুফরিড করুন।

একটি ভাল মানের আর্টিকেল লিখতে হলে একজন আর্টিকেল রাইটারের অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয়ের প্রতি খেয়াল রাখা উচিত যেগুলো মনে রাখলে এবং সেই অনুযায়ী কাজ করলে অবশ্যই আর্টিকেল রাইটার হিসেবে সফলতা পাওয়া সম্ভব। নিম্নের পয়েন্ট গুলো অবশ্যই মাথায় রাখবেন ঃ

  • ওয়েব সাইট থেকে লিখা কপি করেছেন কি ?
  • আপনি লিখার পূর্বে ভালোভাবে চিন্তা-ভাবনা করেছেন কি ?
  • আপনার লিখাটির ইনফরমেশন গুলো কি আপডেটেড ?
  • আর্টিকেলটিতে কি গ্রামাটিক্যল ভুল আছে ?
  • আপনার লিখাটি কি ভালভাবে সম্পাদিত হয়েছে ?
  • আপনার আর্টিকেলটি কি সার্চ ইঞ্জিন বান্ধব ?

উপরের টিপসগুলোর প্রতি লক্ষ্য রেখে আর্টিকেল লিখার প্রতি মনোনিবেশ করুন, সফলতা আসবেই ইনশাল্লাহ। ভালো থাকুন সকলেই।

 

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here